,

অবকাঠামো উন্নয়নে“ নেইবারহুড আপগ্রেডিং” প্রকল্প

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকা দেশের অর্থনৈতিক ও অন্যান্য কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রবিন্দু হওয়ায় গত কয়েক দশক ধরে এ শহরের জনসংখ্যা বেড়েছে অতি দ্রুত হারে। রাজধানীমুখী জনস্রোতের ধারা আগামী দিনগুলোতে কমবে এমনটি লক্ষ করা যাচ্ছে না। কাজেই এ শহরের জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে অবকাঠামোগত উন্নয়নেও নিতে হবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) আট এলাকার বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নে ‘ঢাকা সিটি নেইবারহুড আপগ্রেডিং’ নামে একটি প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে।

প্রকল্পের আওতাভুক্ত এলাকায় নাগরিক সেবার মান বাড়ানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ উল্লেখযোগ্য কিছু প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হবে। প্রস্তাবিত প্রকল্পগুলো যথাযথভাবে বাস্তবায়িত হলে আধুনিকতার ছোঁয়া লাগবে কামরাঙ্গীরচর, লালবাগ, নয়াবাজার, সূত্রাপুর, গুলিস্তান, খিলগাঁও, মুগদা ও বাসাবো এসব এলাকায়। সম্প্রতি পরিকল্পনা কমিশনের প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভায় উল্লিখিত প্রকল্পভুক্ত নানারকম পরামর্শক ব্যয়সহ বিভিন্ন ব্যয় নিয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করা হয়েছে। উল্লিখিত সভায় অনেক ক্ষেত্রে ব্যয় কমানো বা বাদ দেয়ারও সুপারিশ করা হয়েছে।

অবকাঠামো নির্মাণসহ বিভিন্ন প্রকল্পের সঠিক ব্যয় নির্ধারণের পাশাপাশি প্রকল্পের অর্থের যথাযথ ব্যয় নিশ্চিত করা জরুরি। আমাদের দেশে বিভিন্ন প্রকল্পে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অর্থ আসে কঠিন শর্তে প্রাপ্ত ঋণের মাধ্যমে। তাই এসব অর্থ ব্যয়ে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার। যেসব প্রকল্প কারিগরি দিক থেকে জটিল সেগুলোর পরামর্শক ব্যয় বেশি হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। কিন্তু যে ধরনের প্রকল্প আগেও বাস্তবায়িত হয়েছে এবং যেসব প্রকল্পের বিষয়ে আমাদের যথেষ্ট জ্ঞান রয়েছে, তেমন প্রকল্পে পরামর্শক ব্যয় বেশি হলে প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক।

শুধু তাই নয়, এ ধরনের প্রকল্পে পরামর্শক আদৌ দরকার আছে কিনা তাও ভেবে দেখতে হবে। পরামর্শক ব্যয়ের নামে প্রকল্পের অর্থ খরচে অনিয়ম হয় কিনা তাও খতিয়ে দেখা দরকার। যে কোনো প্রকল্পের ক্ষেত্রে অপ্রয়োজনীয় ব্যয় পরিহার করতে হবে। প্রয়োজনে প্রকল্পের এক বা একাধিক শীর্ষ কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া দরকার, যিনি বা যারা ব্যয় কমাতে বিভিন্ন বিষয়ের মধ্যে সমন্বয় সাধন করবেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের আট এলাকার উন্নয়নে প্রস্তাবিত প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়নে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে
shares